রণজয়ের নাম ভাঙিয়ে ৭৩ লক্ষ টাকার প্রতারণা! ফ্যানেদের সতর্ক করলেন পর্দার অনিকেত

Entry Thumbnail
রণজয়ের নাম ভাঙিয়ে ৭৩ লক্ষ টাকার প্রতারণা! ফ্যানেদের সতর্ক করলেন পর্দার অনিকেত
Bikash Deb

দ্যা সোশ্যাল বাংলা , ডিজিটাল ডেস্ক : বাংলা ইন্ডাস্ট্রির অতি পরিচিত নাম রণজয় বিষ্ণু। বর্তমানে জি বাংলার ‘কোন গোপনে মন ভেসেছে’র অনিকেত হিসাবে কুড়োচ্ছেন দর্শকদের প্রশংসা। বুধবার সোশ্যাল মিডিয়ায় উঠতি অভিনেতাদের সতর্ক করলেন রণজয়। কিন্তু কী ঘটেছে?

অভিনেতার নাম ভাঙিয়ে সিরিয়ালে সুযোগের মিথ্য প্রতিশ্রুতি দিচ্ছে কোনও অসাধু ব্যক্তি বা চক্র। শুধু প্রতিশ্রুতি নয়, সিরিয়ালে কাজ পাইয়ে দেওয়ার নাম মোটা টাকাও হাতানো হচ্ছে তরুণ অভিনেতাদের থেকে। সেটা জানতে পেরেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ভিডিয়ো বার্তা দিলেন রণজয়। ইনস্টাগ্রামে একটি ভিডিয়ো পোস্ট করে রণজয় বলেন,'জানতে পেরেছি আমার কোনও একটি লুক সেটের ছবি দেখিয়ে নাকি বলা হচ্ছে যে, আমি একটি নতুন সিরিয়াল করতে চলেছি। সেখানে সুযোগ পাইয়ে দেওয়ার জন্য নাকি অনেক অভিনেতার থেকে টাকাও নেওয়া হয়েছে।’ পরিচিতর কাছে এই খবর জানতে পেরে অবাক রণজয়।

রণজয় জানিয়েছেন, এক জনের থেকে ৬০ লক্ষ টাকা ও অপর আরেক জনের থেকে ১৩ লক্ষ টাকা নেওয়া হয়েছে। রণজয় স্পষ্ট বলেন তিনি এ রকম কোনও সিরিয়াল বা প্রোজেক্ট করছেন। ফ্যানেদের এই ধরণের প্রতারণা চক্রের থেকে দূরে থাকার কথা বলেন অভিনেতা। তিনি জানান,'আমি একজন প্রফেশনাল অ্যাক্টর, তাই আমার প্রফেশনের দৌলতে বহু সময় আমরা অনেক ছবির লুক সেট করি কিন্তু ফাইনালি অনেক সময় সে ছবিগুলো করা হয়ে ওঠে না কোন সময় ডেটের অভাবে কোন সময় টাকা পয়সা এবং বিভিন্ন কারণে…'।রণজয়ের কথায়, ‘এইরকম কোন লুক সেটের ছবি দেখিয়ে আমি জানতে পেরেছি অনেকের কাছ থেকে অনেক টাকা পয়সা নেওয়া হয়েছে, প্রথম কথা এরকম ভাবে টাকা পয়সা দিয়ে অভিনয় করতে আসার এই বোকামিটা দয়া করে করবেন না। কিন্তু আমার তরফ থেকেই সতর্কীকরণ রইল যে আমার কাছে কিন্তু এই পুরো বিষয়টা সম্পর্কে কোন নলেজ নেই। তাই এর কোন রকম দায়ভারও কিন্তু আমার নেই। যেহেতু আমার ছবি দেখিয়ে এই পুরো বিষয়টা করা হচ্ছে তাই আমি বাধ্য হলাম এই সতর্কীকরণ ভিডিয়ো দিতে বাধ্য হলাম’।প্রতারণার ফাঁদ থেকে দূরে থাকতে ফ্যানেদের সতর্ক করে রণজয় বলেন, ‘জেনেবুঝে টাকা বিনিয়োগ করুন। প্রতিভা থাকলে আরও খোঁজখবর নিয়ে তার পর অভিনয়ে আসুন। দয়া করে অভিনয়ের লোভে নিজেদের সর্বস্ব বিকিয়ে দেবেন না।’ তাঁর নাম ভাঙিয়ে কেউ ৭৩ লক্ষ টাকা তুলেছে, ভাবতেই পারছেন না অভিনেতা। অভিনেতার স্পষ্ট বক্তব্য, 'আমি চাই সবাই যেন তাঁদের টাকা ফেরত পান। ভবিষ্যতে প্রয়োজন হলে আমি আর্টিস্ট ফোরাম ও পুলিশে অভিযোগ জানাব।’

0 Comments

Leave a Comment